বয়সে ছোট মেয়েকে বিয়ে করলেই দাম্পত্য হবে সুখের


এদেশে সাধারণত স্বামীর সঙ্গে স্ত্রী’র বয়সের অনেক তফাৎ হয়ে থাকে। তবে আধুনিক যুগে সেসব হিসেব আর খুব একটা থাকে না। তবে বেশ কয়েকটা কারণে বলা হয়, স্বামীর থেকে স্ত্রী’র বয়স অনেক কম হলেই ভালো। বলিউডে শাহিদ-মীরা কিংবা সঈফ-করিনার মধ্যে বয়সের অনেক তফাৎ। আর আপাতদৃষ্টিতে এদের সুখী দম্পতি বলেই মনে করা হয়। তবে বয়সে ছোট মেয়েকে বিয়ে করার কয়েকটি কারণ রয়েছে।

১. দেখা যায়, বয়সে স্বামী অনেক বড় হলে সম্পর্ক হয় মধুর। কারণ, বয়সে সমান হলেও কোনও মহিলার থেকে পুরুষের বুদ্ধি-বিচার কম হয়। ফলে বয়সে বড় হলে তবেই পরিবারকে সামলাতে সক্ষম হবে একজন পুরুষ।

২. সাধারণত, মহিলারা ম্যাচিওর ও সফল পুরুষকেই তাঁদের জীবনে দেখতে চান। ফলে বয়সে বড় হলে তবেই এই গুনগুলো দেখা যায় একজন পুরুষের মধ্যে। তাই বয়সে ছোট মহিলার সঙ্গে ডেটিং-এ গিয়ে বেশি সফল হয়েছেন পুরুষেরা।

৩. ম্যাট্রিমনি ওয়েবসাইটে ঢুকে সাধারণভাবে বয়সে বড় পুরুষের সন্ধান চান মহিলারা।

৪. এই বয়সের তফাৎ নিয়ে বৈজ্ঞানিক হিসেবও রয়েছে। তাঁদের মতে স্বামীর থেকে স্ত্রী’র বয়স অন্তত ৫ বছর কম হওয়া উচিৎ। একই পরিবেশ থেকে এলে তাদের মধ্যে মিল হয় বেশি। আর স্ত্রী যদি স্বামীর থেকে বেশি বুদ্ধিমতী হন, তবেই নাকি সংসার সুখের হয়।

অন্য বিডি আপডেট